ঢাকা, শনিবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ রজব ১৪৪২

ক্রিকেট

১০ মাস পর টাইগারদের আন্তর্জাতিক ম্যাচ, সাকিবকে ঘিরে উচ্ছ্বাস

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
১০ মাস পর টাইগারদের আন্তর্জাতিক ম্যাচ, সাকিবকে ঘিরে উচ্ছ্বাস ক্রিকেটপ্রেমীদের বিশেষ নজরে থাকবেন সাকিব/ছবি: শোয়েব মিথুন

১০ মাস পর দেশের মাটিতে ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। শুরু হচ্ছে টাইগারদের নতুন ক্যাম্পেইন।

আইসিসির নতুন আসর ‘ওয়ানডে সুপার লিগ’-এ বুধবার (২০ জানুয়ারি) টাইগারদের প্রতিপক্ষ খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। এই ম্যাচ দিয়ে দীর্ঘ বিরতির পর জাতীয় দলের জার্সিতে ফিরছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দেশের সেরা খেলোয়াড়ের ফেরার অপেক্ষায় অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় আছেন কোটি সমর্থকরা।

করোনা মরামারির কারণে ২০২০ সালের প্রায় দুই তৃতীয়াংশ সময় স্থগিত থাকার পর ধীরে ধীরে অনেক ক্রিকেট খেলুড়ে দেশে ক্রিকেট ফিরেছে। এরইমধ্যে করোনাবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বেশকিছু সিরিজও। কিন্তু এতদিন সেসব দর্শক হয়ে উপভোগ করতে হয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের।  

অবশ্য করোনাকালেই দুটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কিন্তু বিসিবি ওয়ানডে কাপ ও বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টির আসর দুটো ছিল ঘরোয়া আয়োজন। এই দুই আসরে জাতীয় দল ও ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ থাকলেও বিদেশি ক্রিকেটারদের আনা সম্ভব হয়নি।  

এর আগে শ্রীলঙ্কা সফর বাতিল করতে হয়েছে করোনাবিধি নিয়ে দুই বোর্ডের মধ্যে মতানৈক্য দেখা দেওয়ায়। অন্য কোনো দল আদৌ বাংলাদেশ সফরে আসবে কি না তা নিয়েও ছিল সংশয়। অবশেষে বাংলাদেশের ডাকে সাড়া দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। স্বস্তি ফিরে আসে দেশের ক্রিকেটে। তবে দর্শকদের জন্য দুর্ভাগ্য, করোনার কারণে স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখা হচ্ছে না তাদের।

তবে কাইরন পোলার্ড, শিমরন হেটমায়ার, শাই হোপ, শেলডন কোট্রেলসহ ক্যারিবীয়দের মুল দলের বেশ কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড় বাংলাদেশ সফরে আসেননি। ফলে দলটিকে বলা হচ্ছে খর্বশক্তির দল। সফরকারী দলের কমপক্ষে ৬ জন ক্রিকেটার অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন।  

এদিকে বাংলাদেশের জন্য বড় সুসংবাদ হলো- দীর্ঘ বিরতি শেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছেন সাকিব আল হাসান। এক বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষে বিসিবির সর্বশেষ আয়োজনে খেললেও উইন্ডিজ সিরিজ দিয়েই আন্তর্জাতিকে ফিরছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। অবশ্য নিষেধাজ্ঞার সময়টায় খুব বেশি ম্যাচ মিস করতে হয়নি তাকে। কারণ করোনার কারণে এই সময়ে বছরের অধিকাংশ সময়ই ক্রিকেট বন্ধ ছিল। সাকিবকে ফের জাতীয় দলের জার্সিতে খেলতে দেখার অপেক্ষায় পুরো দেশ।

এই সিরিজ দিয়ে নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে তামিম ইকবালেরও অভিষেক হচ্ছে। মাশরাফি বিন মর্তুজা নেতৃত্ব ছাড়ার পর গত মার্চে দায়িত্ব পেলেও এখন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করা হয়নি তার। তবে করোনাকালের আসন্ন সিরিজ তার জন্য সেই সুযোগ এনে দিয়েছে।

জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার বাধ্যবাধকতার কারণে ১৮ সদস্যের দল ঘোষণা করেছেন বাংলাদেশের নির্বাচকরা। এই দলে আছেন তিন নতুন মুখ- শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান এবং হাসান মাহমুদ। বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ পেসার মাশরাফি।  

তামিম বেশ গোছালো ব্যাটিং লাইনআপ পাচ্ছেন। সাকিব ফেরায় ব্যাটিং লাইনআপ নিশ্চিতভাবেই শক্তিশালী হয়েছে। তবে বোলিং নিয়ে কিছুটা দুশ্চিন্তা থাকছেই। তবে তা নির্ভর করছে কন্ডিশনের ওপর। গত দুই ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় যারা ভালো করেছেন তাদের দিকেই থাকবে বিশেষ নজর। বিশেষ করে হাসান মাহমুদের দিকে থাকবে বাড়তি আগ্রহ।  

অন্যদিকে গত নয় মাসে পাঁচটি টেস্ট এবং ৩টি টি-টোয়েন্টি খেলে আসা ওয়েস্ট ইন্ডিজ করোনাকালের ক্রিকেটের সঙ্গে বেশ পরিচিত। তবে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের অনেকে সফর থেকে সরে দাঁড়ানোয় দল সাজাতেই বেশ হিমশিম খেতে হয়েছে ক্যারিবীয় নির্বাচকদের। ফলে বাধ্য হয়ে তুলনামূলক দ্বিতীয় সারির দল খেলাতে হচ্ছে তাদের। এমনকি ২ বছর বিরতি দিয়ে ফেরা জেসন মোহাম্মদের কাঁধে নেতৃত্বভারও দিতে হয়েছে।

বিশালবপু বিগ হিটার রোভমান পাওয়েল হচ্ছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বর্তমান দলটির সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। এছাড়া মোহাম্মদ, আলঝারি জোসেপ, সহ-অধিনায়ক সুনীল অ্যামব্রোস এবং ব্যাটসম্যান রয়মন রেইফারও ওয়ানডে ফরম্যাটে অভিজ্ঞ। কিন্তু স্কোয়াডের বাকি ৯ জনের এই ফরম্যাটে কোনো অভিজ্ঞতাই নেই। পুরো দলের ওয়ানডে অভিজ্ঞতা মাত্র ১০৫ ম্যাচের।

ক্যারিবীয় শিবিরে বড় ধাক্কা লাগে যখন ফাস্ট বোলার রোমারিও শেফার্ড এবং লেগ স্পিনার হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র করোনা পজিটিভ হওয়ায় ছিটকে যান। শেফার্ড তো দলের সঙ্গে সফরেই আসতে পারেননি। তার বদলে এসেছেন কেয়ন হার্ডিং। আর ওয়ালশ ঢাকার টিম হোটেলে কোয়ারেন্টিনে আছেন।  

বাংলাদেশের জন্য স্বস্তির ব্যাপার হচ্ছে সর্বশেষ পরিসংখ্যান। নিজেদের সর্বশেষ সিরিজে বাংলাদেশ যেখানে জিম্বাবুয়েকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে, সেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ একই ব্যবধানে হেরেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এছাড়া সর্বশেষ ৫ ম্যাচের তিনটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে ক্যারিবীয়রা জিতেছে ২টিতে। তবে দুই দলের মুখোমুখি পাঁচ লড়াইয়ে জিতেছে বাংলাদেশই।  

নজরে থাকবেন যারা

বাংলাদেশের লিটন দাস সর্বশেষ জিম্বাবুয়ে সিরিজে দেশের জার্সিতে সর্বোচ্চ ওয়ানডে ইনিংস খেলেছেন। সর্বশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপেও তার ব্যাট কথা বলেছে। শুধু কি তাই, বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও ব্যাট হাতে রানের ফোয়ারা ছুটিয়ে হয়েছে টুর্নামেন্ট সেরা ব্যাটসম্যান।

অন্যদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেসন মোহাম্মদ থাকবেন টাইগারদের বিশেষ নজরে। মিডল অর্ডারে ঝড় তুলতে সক্ষম এই ব্যাটসম্যান এবার থাকছেন অধিনায়কের ভূমিকায়।  

বুধবার সকাল ১১-৩০ মিনিটে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি।

বাংলাদেশ ওয়ানডে দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন কুমার দাশ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেন, তাইজুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদি হাসান, হাসান মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে দল: জেসন মোহাম্মদ (অধিনায়ক), সুনীল আমব্রিস (সহ-অধিনায়ক), এনক্রুমাহ বোনার, জশুয়া দা সিলভা, কিয়ন হার্ডিং, জাহমার হ্যামিল্টন, চেমার হোল্ডার, আকিল হোসেইন, আলঝেরি জোসেফ, কাইল মায়ার্স, আন্দ্রে ম্যাকার্টি, কিয়র্ন ওটলে, রভমেন পাওয়েল, রেইমন রেইফার, হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র।

বাংলাদেশ সময়: ২১০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa