ঢাকা, সোমবার, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৬ রবিউস সানি ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভৈরব বিসিক শিল্পনগরীর কাজের নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভৈরব বিসিক শিল্পনগরীর কাজের নির্দেশ শিল্প মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা

ঢাকা: ভৈরব বিসিক শিল্পনগরী প্রকল্পের নির্মাণ কাজ অগ্রাধিকারভিত্তিতে সম্পন্ন করার নির্দেশনা দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

তিনি বলেন, ভৈরবে পাদুকা শিল্পের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে।

ইতোমধ্যে রাজধানী ঢাকা থেকে পাদুকা শিল্পের সঙ্গে জড়িত অনেক কারিগর ও শ্রমিক ভৈরবে স্থানান্তরিত হয়ে জুতা কারখানা স্থাপন করেছেন।

পাদুকার অভ্যন্তরীণ বিপুল চাহিদা মেটাতে ভৈরব শিল্পনগরী প্রকল্পের দ্রুত বাস্তবায়ন এবং এতে পাদুকা শিল্প উদ্যোক্তাদের চাহিদা মাফিক প্লট বরাদ্দ দিতে বিসিককে নির্দেশনা দেন শিল্পমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে শিল্প মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব নির্দেশনা দেন কিরি।

সভায় দেশের সব বিভাগীয় ও গুরুত্বপূর্ণ জেলা শহরসমূহে বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) আঞ্চলিক কেন্দ্র স্থাপন করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নের চলমান গতি ধরে রাখতে সংস্থা পর্যায়ে নিবিড় মনিটরিং আরও জোরদার করতে হবে। সরকারের ব্যয় সাশ্রয়ে বিভিন্ন কারখানায় যন্ত্রাংশ বার বার মেরামতের পরিবর্তে নতুন মেশিনারি প্রতিস্থাপন করতে হবে। পাশাপাশি কারখানা পর্যায়ে যেকোনো ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রতিরোধে সর্বদা সজাগ থাকতে হবে।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, বিদেশ থেকে চিনি আমদানি করে সেগুলোকে রিফাইনিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের (বিএসএফআইসি) চিনি কলগুলোতে সারা বছর উৎপাদন কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে। এছাড়া উসমানিয়া গ্লাস শিট ফ্যাক্টরিকে লাভজনক করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সভায় জানানো হয়, সাভারে অবস্থিত চামড়া শিল্প নগরীর অবশিষ্ট কাজ এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সমাপ্ত করতে চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সম্মত হয়েছে। ‘সার সংরক্ষণ ও বিতরণের সুবিধার জন্য দেশের বিভিন্ন জেলায় ১৩টি বাফার গোডাউন নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে দুটি বাফার গোডাউন হস্তান্তর করা হয়েছে এবং আরো পাঁচটি বাফার গোডাউন ডিসেম্বরের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে বলে নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান সেনা কল্যাণ সংস্থা সভায় অবহিত করেছে।

‘এলইডি লাইট (সিকেডি) অ্যাসেমব্লিং প্লান্ট ইন ইটিএল’ প্রকল্পের আওতায় ছয়তলা ভবন ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি স্থাপনের কাজ সমাপ্ত হওয়ায় ইস্টার্ন টিউবস লিমিটেডকে এলইডি বাল্ব উৎপাদন দ্রুত শুরু করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

শিল্প সচিব কে এম আলী আজমের সভাপতিত্বে সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর/সংস্থার প্রধান, মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
জিসিজি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa