ঢাকা, শনিবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ রজব ১৪৪২

তথ্যপ্রযুক্তি

বাংলাদেশে অফ-শোর ডেভেলপমেন্ট সেন্টার স্থাপনের আহ্বান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২১
বাংলাদেশে অফ-শোর ডেভেলপমেন্ট সেন্টার স্থাপনের আহ্বান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক

ঢাকা: জাপানি আইটি উদ্যোক্তাদের কাছে বাংলাদেশে অফ-শোর ডেভেলপমেন্ট সেন্টার স্থাপনের আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বাংলাদেশের তরুণদের কাজে লাগাতে জাপানি আইটি উদ্যোক্তাদের প্রতি এ আহ্বান জানান তিনি।

পাশাপাশি বাংলাদেশি আইটি প্রতিষ্ঠানগুলোকে জাপানের ব্যবসা সম্প্রসারণের ওপর গুরুতারোপ করেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) অনলাইনে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ জাপান বিটুবি আইটি বিজনেস ম্যাচমেকিং মিটিং ২০২১’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন পলক। জাপানি কোম্পানির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন, বাজার গবেষণার লক্ষ্যে জাপানস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসের (বেসিস) যৌথ উদ্যোগে এ অনুষ্ঠান আয়োজিত হচ্ছে।

এসময় পলক বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম দ্রুত বর্ধনশীল দেশ। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের সমন্বিত উন্নয়ন সূচকে অনেক বড় দেশকে ছাড়িয়ে বাংলাদেশ বর্তমানে ৩৪ তম অবস্থানে রয়েছে। আগামী ২০৩০ সাল নাগাদ বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ২৪তম বৃহৎ অর্থনৈতিক দেশ। অক্সফোর্ড ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউটের তথ্য অনুযায়ী, গ্লোবাল অনলাইন ওয়ার্কফোর্সে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়। এ সাফল্য অর্জনে চালিকাশক্তি হিসেবে ভূমিকা রাখছে দেশের সব খাতে আইসিটির স্মার্ট ব্যবহার। ’

প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আইসিটি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী কোম্পানিগুলোকে ব্যয় সাশ্রয়ী সেবা দিতে ৩৯টি হাই-টেক পার্ক নির্মাণ করা হচ্ছে। ৬৪টি জেলায় শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার, স্কুল অব ফিউচার ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৩ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হচ্ছে। ২০২৫ সালে আইটি খাত হতে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ’

পলক জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘ পরীক্ষিত বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী উল্লেখ করে বলেন, ‘জাপানি তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন, ব্যবসা সম্প্রসারণ, এবং বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে এ বিটুবি ম্যাচমেকিং প্রোগ্রাম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মি. ইতো নাওকি, জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. জাফর উদ্দিন, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজিন্সির (জাইকা) কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ মি. হায়াকাওয়া ইউহো, জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের (জেট্টো) কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ইউজি আন্দো, বেসিসের সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির, ফুজিৎসু রিসার্চ ইনস্টিটিউটের জেনারেল ম্যানেজার মি. ইমামুরা তাকেশি

পরে প্রতিমন্ত্রী বিটুবি ম্যাচমেকিং প্রোগ্রাম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২১
এসএইচএস/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa