ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

মৃৎশিল্পের উন্নয়নে পাশে থাকবে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০২০
মৃৎশিল্পের উন্নয়নে পাশে থাকবে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ ও অন্যান্যরা

বরিশাল: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ বলেছেন, বর্তমানে মৃৎশিল্পের জায়গায় অন্যান্য মেটালিক জিনিসপত্র ব্যবহার হচ্ছে। সেগুলো সহজলভ্য ও দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার কারণে মৃৎশিল্পের ব্যবহার কমে গেছে।

এরপরও গ্রামে-গঞ্জে কিছু কিছু জায়গায় কিছু কিছু বাড়িতে এখনও দেখি আদি ঐতিহ্য ধরে রাখতে। মাটির চালের মটকা কিংবা অন্যান্য পাত্রে খাদ্য সংগ্রহ করে। মাটির কলসিতে পানি রাখছে। সবকিছু মিলে তারা এখনও বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখার চেষ্টা করছে। আবার বর্তমানে শুঁটকি উৎপাদনে মাটির হাঁড়ির কোনো বিকল্প নেই। বাসা-বাড়িতে এখনও মাটির টবসহ ঘরকে সাজানোর কাজে বিভিন্ন সামগ্রীর ব্যবহার হচ্ছে।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) সকালে বরিশাল সার্কিট হাউস সম্মেলন কেন্দ্রে মৃৎশিল্পী সম্মেলন ও সম্মাননা-২০২০ এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভার্চ্যুয়ালি তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, একসময় মাটির এসব পাত্র যারা তৈরি করতেন, তাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এ পেশায় থাকতে চাচ্ছে না। কারণ এ পেশায় থেকে জীবন ধারণ অত্যন্ত কঠিন হয়ে গেছে। মৃৎশিল্পের উন্নয়নের জন্য সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সবসময় পাশে থাকবে। এই শিল্পের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের প্রশিক্ষণ ও বাজার সৃষ্টির জন্য কোনো উদ্যোগ নেওয়া হলে তার সঙ্গে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ও থাকবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মৃৎশিল্পীদের নিয়ে বরিশালে এই অসাধারণ আয়োজনটি ২০০৯ সাল থেকে হাঁটি হাঁটি পা পা করে এই ১২ বছর অতিক্রম করতে চলেছে। যারা এ আয়োজন করছেন তাদের ধন্যবাদ জানাই। দেশীয় মৃৎশিল্পের ব্যবহারকে আবারও জনপ্রিয় করতে এই যে প্রয়াশ, সেজন্য আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এ আয়োজনের মধ্যে এ শিল্পের আরও বিস্তৃতি কামনা করছি। প্রচারণার পরিমাণ যদি একটু বাড়াতে পারি অথবা মৃৎশিল্প নিয়ে ঢাকায় শিল্পকলা একাডেমির মাধ্যমে দুই বা চারদিনের জন্য অনুষ্ঠান করতে পারি সে চেষ্টা থাকবে। আর সম্মেলন আয়োজক কমিটির মাধ্যমে মৃৎশিল্পীদের প্রণোদনার জন্য আমি দুই লাখ টাকার প্রণোদনার ঘোষণা করছি।

মৃৎশিল্পী সম্মেলন ও সম্মাননা অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির প্রধান সমন্বয়ক সুশান্ত ঘোষের সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বরিশালের জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান, আভাসের নির্বাহী পরিচালক রহিমা সুলতানা কাজল, সনাকের সভাপতি অধ্যাপক শাহ সাজেদা প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০২০
এমএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa