ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ রজব ১৪৪২

জাতীয়

‘বঙ্গবন্ধু নৃগোষ্ঠীগুলোর ভাষার মানোন্নয়ন করতে চেয়েছিলেন’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৫৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১
‘বঙ্গবন্ধু নৃগোষ্ঠীগুলোর ভাষার মানোন্নয়ন করতে চেয়েছিলেন’ আবদুল গাফফার চৌধুরী

মেহেরপুর: বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলাম লেখক আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক ভাষা ও বাংলাদেশকে একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ বানাতে চেয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশের নৃগোষ্ঠীগুলোর এবং পাহাড়ি ভাষাগুলোরও মানোন্নয়ন করতে চেয়েছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর সে আশা পূরণ করতে দেয়নি একদল সামরিক জান্তা।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মেহেরপুর জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ‘মুজিববর্ষে শতঘণ্টা মুজিবচর্চা’ শীর্ষক (ভার্চ্যুয়াল) কর্মসূচিতে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

জেলা প্রশাসক ড. মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আবদুল গাফফার চৌধুরী আরও বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে মুজিবনগর একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। স্বাধীনতার ইতিহাসে একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ।

‘ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত বাংলা ভাষাকে প্রাদেশিক সরকারি ভাষা করার দাবি জানিয়েছিলেন পাকিস্তানের গণপরিষদে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিমুদ্দিন অঙ্গীকার করেছিলেন বাংলাকে প্রাদেশিক সরকারি ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেবেন বলে। কিন্তু পাকিস্তানে গিয়ে তিনি সে ওয়াদা ভঙ্গ করে উর্দুকে একমাত্র পাকিস্তনের রাস্ট্র ভাষা হিসেবে বক্তব্য রাখেন। ’ 

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু তখন ছিলেন সবার মুজিব ভাই। মুজিব ভাই ১৯৪৬ সাল থেকেই বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সাবেক সচিব আল কামা সিদ্দিকী, মেহেরপুর জজকোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট পল্লব ভট্টাচার্য, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম শাহিন।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১
এইচএডি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa